কম্বোডিয়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসা=কম্বোডিয়ায় কাজের বেতন কত

কম্বোডিয়ে ওয়ার্কার পারমিট ভিসা এবং কম্বোডিয়ে কাজের বেতন কত এ সম্পর্কে আজকে আমি আপনাদের মাঝে আলোচনা করব। 

আপনারা যারা বিভিন্ন দেশে কাজের উদ্দেশ্য নিতে চান তারা হয়তো কম্বোডিয়ে সম্পর্কে অনেকেই জানেন না, তাই আজকে আমি আপনাদের মাঝে কম্বোডিয়ে কাজের সম্পর্কে কিছুটা ধারণা দেওয়ার জন্য এই আর্টিকেলটি লিখেছি। 

আশা করব আমার এই আর্টিকেলটি অবশ্যই আপনাদের ভালো লাগবে এবং কম্বোডিয়ে যারা যেতে চান তাদের কিছুটা হলে উপকৃত হবেন। 

তাহলে চলুন আমরা কম্বোডিয়ে ওয়ার্কার পারমিট বেশি এবং কম্বোডিয়ে কাজের বেতন সম্পর্কে জেনে নেই। 

কম্বোডিয়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসা=কম্বোডিয়ায় কাজের বেতন কত


কম্বোডিয়ে কাজের ভিসা

কম্বোডিয়েকাজের ভিসা সংক্রান্ত সকল তথ্য তুলে ধরব যদি আপনি কম্বোডিয়ে যেতে চান তাহলে আজকের এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য। 

কম্বোডিয়ে সম্পর্কে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়ে যাবেন যা থেকে আপনাকে কম্বোডিয়ে সম্পর্কে সাময়িক জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন। 

যা আপনাদের পরবর্তী সময়ে উপকারে আসতে পারে, আপনি যদি কম্বোডিয়ে সম্পর্কে জানতে চান পুরো কনটেন্টই মনোযোগ সহকারে পড়ুন। 


কম্বোডিয়ে ওয়ার্কারপারমেন্ট ভিসা

আপনারা অনেকেই রয়েছেন দেশের বাহিরে কাজ করতে যেতে চান আপনারা অনেকেই গুগলের সার্চ দিয়ে থাকেন। 

কম্বোডিয়ে কাজের ভিসা বা কলম্বিয়া ওয়ার্কার পারমিট ভিসা লিখে, আপনারা আমাদের এই আর্টিকেলটি থেকে যে সকল তথ্যগুলো জানতে পারবেন। 

তা হলো কম্বোডিয়ে কাজের বেতন কত, কম্বোডিয়ে যেতে কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজন, কম্বোডিয়ে যেতে কত টাকা লাগে, কম্বোডিয়ে ভিসা প্রসেস এর ইত্যাদি সম্পর্কে তথ্য নিচে উল্লেখ করা হলো। 


কম্বোডিয়ে কাজের বেতন কত

কম্বোডিয়ে একজন শ্রমিক মাসিক আয় করতে পারবেন প্রায় 500 ডলারের মতন, এছাড়াও কাজের উপর নির্ভর করে আয় কম বেশি হতে পারে। 

কারণ বিভিন্ন কোম্পানিতে বিভিন্ন কাজের জন্য ভিন্ন ভিন্ন রকম বেতন নির্ধারণ করা হয়ে থাকে, আর সেই ততবেক শ্রমিকদের বেতন দেওয়া হয়। 


কলম্বিয়া কন্ট্রাকশন লেবারের বেতন কত

আপনারা যারা কলম্বিয়াতে কন্ট্রাকশন লেবারের কাজ করবেন তখন হয়তো আপনার মাসে আয় করতে পারবেন প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ইউএস ডলার। 

এছাড়াও কন্ট্রাকশন কাজের জন্য অনেক সময় আরো বেশি বেতন ও পাওয়া যায় এমন ৪০০ থেকে ৬০০ ডলারের মতন। 


কম্বোডিয়া  ক্যাসিনোতে কাজের বেতন কত

আপনারা যারা কম্বোডিয়ায় কেসিনেতে কাজ করতে চান তাদের জন্য সুখবর, কম্বোডিয়ায় গিয়ে যদি আপনি ক্যাসিনেতে কাজ করে থাকেন তাহলে আপনার বেতন হবে প্রায় 800 থেকে 12 00 ডলারের মতন। কম্বোডিয়ায় এই কাজটির গুরুত্ব বেশি দেওয়া হয়ে থাকে যে কারণে এর বেতন অনেক বেশি।

 

কম্বোডিয়ায় হোটেল জব এর বেতন কত

আপনারা যারা কম্বোডিয়ায় হোটেলে কাজ করতে চান তাদের অনেকের ই জানার আগ্রহে রয়েছে, কম্বোডিয়া য় হোটেলের কাজ এর বেতন কত সে সম্পর্কে। 

জানতে চান তাহলে জেনে নিন এর বেতন দেওয়া হয়ে থাকে ৪০০ থেকে ৫৫০ ইউ এস ডলারের মতন তাই এ কাজেরও গুরুত্ব রয়েছে। 


কম্বোডিয়ে কম্পিউটার অপারেটর এর কাজের বেতন কত

যারা কম্বোডিয়ায় গিয়ে কম্পিউটার অপারেটরের এর কাজ করতে চান তাদের বেতন খুবই ভালো, তারা মাসে আয় করতে পারবে প্রায় 800 থেকে ১২০০ ইউ এস ডলারের মতন। 

এছাড়াও এসব কাজের ক্ষেত্রে দক্ষতার উপর নির্ভর করে তাই কাজ অনুসারে বেতন কমবেশি হতে পারে। 


কম্বোডিয়ায় কোন কাজের চাহিদা বেশি

অনেকেই জানতে চান কম্বোডিয়ায় কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে হয়তো আপনাদের জানার মূল কারণ আপনারা কম্বোডিয়ায় যেতে ইচ্ছুক সেই কারণে। 

তাহলে চলুন আমরা জেনে নেই কম্বোডিয়ায় কোন কাজের চাহিদা বেশি, কম্পিউটারে যে সকল কাজের চাহিদা বেশি তার নিচে দেওয়া হল। 

১। কন্ট্রাকশন, 

সাটারিং কার্পেন্টার, ম্যাসন, লেবার, স্টিল পিকচার, ইলেকট্রিশিয়ান,, পেন্টার ইঞ্জিনিয়ার,

২। গার্মেন্টস

কাটিং মাস্টার, সুইং অপারেটর, জেনারেল ম্যানেজার। 

৩। ক্যাসিন

কম্পিউটার অপারেটর। 

৪। হোটেল

ক্লিনার, সেফ, এছাড়াও কম্বোডিয়া আরো অনেক রকম কাজের চাহিদা রয়েছে যার মাধ্যমে আমরা কয়েকটি কাজ সম্পর্কে আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করলাম। 


কম্বোডিয়ায় ভিসা খরচ কত

আপনারা যারা কম্বোডিয়ায় যেতে চান তারা হয়তো ভিসা খরচ সম্পর্কে জানতে চান, অনেক সময় কম্বোডিয়ায় ভিসার দাম কম বেশি হয়ে থাকে। 

আপনি যদি কন্ট্রাকশনের কাজে করতে যেতে চান তাহলে আপনার খরচ হবে আড়াই লক্ষ থেকে সাড়ে তিন লক্ষ টাকা পর্যন্ত। যদি আপনি হোটেল জব এর জন্য যান তাহলে আপনার খরচ পড়বে দুই থেকে তিন লাখ টাকার মতন

আশা করি আপনারা ভিসা খরচ সম্পর্কে একটু হলেও ধারণা পেয়েছেন আড়াই থেকে চার লক্ষ টাকার মতন হয়ে থাকে। 


কম্বোডিয়ায় যেতে কি কি ডকুমেন্টের প্রয়োজন হয়

আপনারা অনেকে কম্বোডিয়া য় কাজ করার জন্য যেতে চান, আপনারা অনেকেই জানেন না কম্বোডিয়ায় যেতে কি কি ডকুমেন্টের প্রয়োজন হতে পারে। 

ডকুমেন্টগুলো সম্পর্কে না জানার কারণে অনেক সময় হয়রানির শিকার হতে হয়, তাহলে চলুন কি কি ডকুমেন্টের প্রয়োজন হয় সেগুলো নিচে উল্লেখ করা হলো। 

পাসপোর্ট এর মেয়াদ থাকতে হবে কমপক্ষে ছয় মাস এর বেশি

দুইটা বা তার অধিক ফাঁকা পৃষ্ঠে থাকতে হবে। 

আপনার এনআইডি কার্ডের ফটোকপি। 

মেডিকেল সার্টিফিকেট এর প্রয়োজন হবে। 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের সার্টিফিকেট এর প্রয়োজন হবে। 

এছাড়া কোরোনার টিকা কার্ড এর প্রয়োজন হবে। 

সদ্য তোলা ছবির প্রয়োজন হবে। 


কম্বোডিয়াতে বাঙালিরা কি কি কাজ করবেন

বাংলাদেশ থেকে কম্বোডিয়া গিয়ে অনেকেই অনেক ধরনের কাজ করে থাকেন, আপনারা যারা নতুনভাবে কম্বোডিয়ার যেতে আগ্রহী। 

তারা সেখানে গিয়ে কেমন ধরনের কাজ করবেন তা জানার আগ্রহ প্রকাশ করে থাকেন, কম্বোডিয়ায় গিয়ে বাঙালিরা কেমন কাজ করেন তা নিচে দেওয়া হল। 

১. কনস্ট্রাকশনের কাজ করে থাকেন। 

২.সাটারিং কার্পেন্টার এ কাজও করে থাকে। 

৩. ম্যাসন এর কাজ করে থাকেন। 

৪. লেবারের কাজও করে থাকেন। 

৫. স্টিল পিকচার এর কাজও করে থাকেন। 

৬. ইলেকট্রিশিয়ান এর কাজও করে থাকেন। 

৭. প্রিন্টারের কাজও করে থাকেন। 

৮. ইঞ্জিনিয়ার এর কাজও করে থাকে। 

৯. গার্মেন্টস এর কাজও করে থাকে। 

১০. কাটিং মাস্টারের কাজও করে থাকেন। 

১১. জেনারেল মেনেজারের কাজও করে থাকেন। 

১২. সুইং অপারেটর এর কাজও করে থাকেন। 

১৩. কম্পিউটার অপারেটর এর কাজ করে থাকে। 

১৪. ক্যাসিনো এর কাজও করে থাকেন  .

১৫. ক্লিনার এর কাজও করে থাকে। 

১৬. হোটেলের কাজ করে থাকেন। 

উপরে উল্লেখিত কাজগুলো বাঙ্গালীরা করে থাকেন কম্বোডিয়া এগিয়ে, তাই আপনারা যে যেই কাজের উপরে দক্ষতা অর্জন করেছেন সে ওই কাজের বিষয় যেতে পারেন। 

আপনারা যারা কম্বোডিয়াই কাজের উদ্দেশ্য হোক বা যে কোন উদ্দেশ্যে যেতে চান তারা হয়তো আমার এই আর্টিকেল থেকে জানতে সক্ষম হয়েছেন। 

কম্বোডিয়ায় যেতে হলে কি কি করতে হবে এবং কি ডকুমেন্টের প্রয়োজন আছে আশা করব আমার এই আর্টিকেলটি আপনাদের অবশ্যই ভালো লেগেছে।

তাই কম্বোডিয়া সম্পর্কে এই আর্টিকেলটি আমি এখানেই শেষ করলাম সবাই ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নবীনতর পূর্বতন

যোগাযোগ ফর্ম