ইন্দোনেশিয়া টুরিস্ট ভিসা আপডেট সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা

ইন্দোনেশিয়া টুরিস্ট ভিসা আপডেট সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা, পিও ভিজিটর ভাই ও বোনেরা আপনারা যারা ইন্দোনেশিয়া টুরিস্ট ভিসার আপডেট জানতে চান। 

তারা আমার এখান থেকে অর্থাৎ আমার এই আর্টিকেলে সম্পূর্ণ বিষয় পেয়ে যাবেন। আশা করব আমার এই আর্টিকেলটি পড়ার পরে ইন্দোনেশিয়া ট্যুর ভিসা সম্পর্কে জানার মতন আর কিছুই থাকবে না।  

কেননা আমি এখানে সব কিছুই আমার জানা মতে উল্লেখ করে দেব, তাই আপনারা যারা ভ্রমণ প্রিয়সি ভাই ও বোনেরা রয়েছে। তারা হয়তো বিভিন্ন দেশে যেয়ে থাকেন, কিন্তু ইন্দোনেশিয়ায় যারা যেতে চান, তারা অবশ্যই আমার এই আর্টিকেলটি দেখে নিবেন। 

তাহলে চলুন আজকে আর বেশি কথা না বাড়িয়ে ইন্দোনেশিয়া টুরিস্ট ভিসার আপডেট সম্পর্কে জেনে নেই। 

ইন্দোনেশিয়া টুরিস্ট ভিসা আপডেট সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা


ইন্দোনেশিয়া টুরিস্ট ভিসা আপডেট

ইন্দোনেশিয়া দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার একটি দ্বীপ রাষ্ট্র যেটি প্রায় পাঁচ হাজার দ্বীপের সমান গঠিত এই দেশটি।  পৃথিবীর বৃহত্তম মুসলিম শঙ্খ ঘোষ রাষ্ট্রটি সুমাত্র জাভা নিউ পাঁচটি প্রধান দ্বীপটিতে রয়েছে, বৈচিত্র্যপূর্ণ সৌন্দর্যের রাজ্য ইন্দোনেশিয়া পর্যটকদের জন্য একটি আকর্ষণীয় দেশ। 

আর এই বৈচিত্র্যপূর্ণ সৌন্দর্যের আকর্ষনে ভ্রমণপিয়াসী অনেক ভ্রমণকারী ইন্দোনেশিয়া বেড়াতে যায়।  শুধু নয় এখানে অনেক ব্যবসায়িক কাজেও প্রতিবছর অনেক ইন্দোনেশিয়ায় আসে, কোন বাংলাদেশী নাগরিক ইন্দোনেশিয়া ভ্রমণ করতে চাইলে। 

অথবা ব্যবসার কাজে ইন্দোনেশিয়া যেতে চাইলে তাকে অবশ্যই ভিসা নিতে হবে, আর এইজন্য বাংলাদেশ ইন্দোনেশিয়ার দূতাবাসের মাধ্যমে ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। 

অন্তত ছয় মাস মেয়াদি পাসপোর্ট ভিসা ছাড়াও ইন্দোনেশিয়া প্রবেশের জন্য যেসব কাগজপত্র প্রয়োজন হবে। 

ইন্দোনেশিয়ায় ভিসার জন্য যেসব কাগজ পাতি প্রয়োজন

ভ্রমণকারী নিজ দেশে বা যে দেশ থেকে এসেছেন সেই দেশে ফিরে যাবেন এই মর্মে অঙ্গীকার নামা।  ফিরতি বিমান টিকিট ভ্রমণকারী ইন্দোনেশিয়া ভ্রমণ এরপর নির্দেশ ছাড়া অন্য কোনো দেশে যাওয়ার পরিকল্পনা করে থাকলে, সে দেশের ভিসা ও ইন্দোনেশিয়া ভ্রমণের সময় দেখাতে হবে। ইন্দোনেশিয়া অবস্থানের জন্য পর্যাপ্ত অর্থ থাকার প্রমাণ দেখাতে হবে। 

ভিসা ও অন্যান্য কাগজপত্র থাকার পরও ইন্দোনেশিয়ায় প্রবেশে বাধা দেওয়ার এক্তিয়ার রয়েছে, ইন্দোনেশিয়ার মিক্রশন কর্মকর্তাদের। বিমানবন্দরের স্পনসর লেটার হোটেলের কনফার্মেশন এসব দেখাতে দেখতে চাওয়া হতে পারে তাই এসব সাথে রাখেই রাখতে হবে। 


ভিসা আবেদন যেভাবে করবেন


অনলাইনে ভিসা আবেদন করতে হয় ঢাকায় ইন্দোনেশিয়া দূতাবাসের ওয়েবসাইটে গিয়ে ভিসা ফরম পূরণ করতে হবে। অনলাইনে ফরম পূরণের পর সেটার প্রিন্ট আউট নিয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ জমা দিতে হবে। 

অন্তত দুই সপ্তাহ হাতে নিয়ে ভিসা আবেদন জমা দেওয়া উচিত, কেননা হয়তো অনেক সময় অনেক কাজের ক্ষেত্রে লেট হতে পারে, এক্ষেত্রে সময় নিয়ে জমা দেওয়া টা ভালো। 


ভিসা আবেদনের জন্য অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র


অনলাইনে পূরণকৃত ভিসা আবেদনের প্রিন্ট কপি লাল পটভূমিতে সাম্প্রতিক দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি। ট্রাভেল এজেন্ট এর মাধ্যমে আবেদন করলে ট্রাভেল এজেন্ট একটি অথরাইজেশন লেটার দিতে হবে। 

ব্যবসায় প্রয়োজন বা সামাজিক সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে অংশ নিতে ইন্দোনেশিয়া যেতে সংশ্লিষ্ট দেশ থেকে ঢাকায় ইন্দোনেশিয়া দূতাবাস আমন্ত্রণ পত্র পাঠাতে হবে। 

সিঙ্গেল এন্টি লিমিটেড সেট বা মাল্টিপল এনটিভি সে যাই হোক না কেন আমন্ত্রণপত্র প্রয়োজন হবে। আমন্ত্রণপত্র পাঠানোর ফ্যাক্স নাম্বার 880 288 25391 অথবা 8810 993  ........

সিঙ্গেল এন্টি ভিসার ক্ষেত্রে পাসপোর্ট এর মেয়াদ অন্তত ছয় মাস থাকতে হবে, লিমিটেড সেট এন্টি ভিসা এবং মাল্টিপল বিজনেস এন্টি ভিসার ক্ষেত্রে পাসপোর্ট এর মেয়াদ অন্তত 18 মাস হতে হবে। 

আবেদনকারীর পাসপোর্ট এর ফটোকপি, কোম্পানির ট্রেড লাইসেন্স এর ফটোকপি, ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর ফটোকপি, ভিসার জন্য আবেদন করার দিন থেকে তিন মাস পূর্বের পর্যন্ত। 

হোটেল বুকিং এর ফটোকপি, শুধুমাত্র টুরিস্ট ভিসার জন্য, আবেদন কার্ডের ফটোকপি অথবা অন্য দেশে যাওয়ার টিকিট এর কপি। ইন্দোনেশিয়ার প্রমাণপত্র আবেদনের আবেদনপত্র জমা দেওয়ার সময় সব কাগজপত্র আনতে হবে। 


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নবীনতর পূর্বতন

যোগাযোগ ফর্ম