পুস্পা মুভি রিভিউ // Puspa Movie Review

প্রিয় পাঠক ভাই ও বোনেরা আজকে আমি আলোচনা করব পুষ্প মুভির রিভিউ নিয় আপনারা যারা পুষ্পা মুভি দেখেছেন বা কখনও দেখেননি। যারা দেখেন নি তারা পুষ্পা মুভি দেখে নিন কেননা পুষ্পা মুভি একটি সেই রকম মুভি, তাই আমি আজকে এই পুষ্পা মুভিররিভিউ নিয়ে হাজির হলাম। 

তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক পুষ্পা মুভির সম্পর্কে, শুরুতেই পুষ্পা চরিত্রে অভিনয় করার কথা ছিল মহেশ বাবুর। আর আইপিএস অভিনয় করার কথা ছিল যিশু সেনগুপ্তর, সিনেমা আল্লু অর্জুন ওরফে পুষ্পার সাথে চন্দন দস্যু বীরাপ্পানের বেশ সাযুজ্য লক্ষ করা যায়, এসব নিয়ে আজকে আমি আলোচনা করব পুষ্পা মুভি সম্পর্কে। 

পুস্পা মুভি রিভিউ // Puspa Movie Review


পুষ্প ছবির নির্মাতা সম্পর্কে

আমি শুরুতেই পুষ্পা মুভি নির্মাতা সম্পর্কে এবং পুষ্প ছবিতে অভিনয়, প্রযোজক, চিত্র ডায়লগ, প্রচার এদের সম্পর্কে আলোচনা করব, তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক পুষ্প মুভি নির্মাতাদের সম্পর্কে। 

ছবি পুষ্পা দারাজ পরিচালনা সুকুমার প্রযোজক রবি শংকর, পুষ্পা মুভির অভিনেতা আল্লু আর্যুন, রশমিকা মন্দানা, ফাহাদ ফাসিল, সিনেমার পার্শ্ব চরিত্রে রয়েছে অজয় রাও, রমেশ, ধনঞ্জয় অজয়, কল্পলতা। 

পুষ্পা মুভির চিত্রনাট্য ও ডায়লগ সুকুমার, পুষ্পা মুভি চিত্রগ্রাহক মিরোস্লা কুবা ব্রজেক, পুষ্পা মুভির প্রোডাকশন কোম্পানি মুত্তামশেট্টি মিডিয়া এবং মৈত্রী,পুষ্পা মুভি মেকার্সের রেটিং ৪.৫। 


পুষ্পা মুভির গল্প


পুষ্পা দারাইস গল্পের মূল বিষয় লাল চন্দন কাঠ পাচার এবং এই পাচারের সাথে যুক্ত চোরাকারবারীদের সিন্ডিকেটের গল্প। পুষ্পা একজন সাধারণ শ্রমিক যে পরে জড়িয়ে পড়ে চন্দন কাঠ পাচারের সঙ্গে, সে বুদ্ধি করে বিভিন্ন ভাবে কাঠ পাচার শুরু করে। 

ধীরে ধীরে সিন্ডিকেটের মধ্যে নিজের প্রভাব বাড়তে শুরু করে, এবং এই ব্যবসার মাথা মঙ্গল সিং কে চ্যালেঞ্জ করে বসে। মূল গল্পের সাথে একটি সাইট রয়েছে যেখানে পুষ্পা তার জন্ম পরিচয় নিয়ে সন্দিহান যে কারণে প্রেমিকার সাথে তার বিয়ে ভেঙ্গে যায়। 

কিন্তু ভিলেন কে যখম করে সেই প্রেমিকাকেই সে উদ্ধার করে পুষ্প গল্পের দুজন পুলিশ অফিসারের প্রসঙ্গ এসেছে। প্রথমজন ডিএসপি গোপি, প্রথমদিকে বাধাদানকারী অফিসের আর দ্বিতীয় আইপিএস অফিসার থানায় ডেকে এনে অপমান করলে। 

পুষ্প তাকে উচিত শিক্ষা দেয় বিয়েতে সিনেমার প্রথম পর্বের ইতি দেখিয়েছেন পরিচালক, সিনেমা সব ভিলেনই জীবিত। পুষ্পার সাথে ছত্তিশ কা আঁকড়ার  পুলিশ অফিসার ভবর সিং শেখাওয়াতও তৈরি পুষ্পার বিরুদ্ধে বদলা নেওয়ার জন্য। 

এসব হাজারো চমক অপেক্ষা করছে পরবর্তী পর্বে অনেকটা কেজিএফ চ্যাপটার পরিচালক এখানে শুধু গল্পের শুরু দেখিয়েছেন। যা একাধিক পড়বে রোমাঞ্চকর নিয়ে শেষ হবে, পুষ্পধারা বোঝা যাচ্ছে যে দ্বিতীয় পাঠ হবে। 

পুস্পা মুভি রিভিউ // Puspa Movie Review


পুষ্পা মুভির অভিনয়

পুষ্পা মুভিতে অভিনয় আল্লু অর্জুন এবং রেস্মিকা মান্দানা অভিনয় দর্শকদের উপভোগ করেছে সিনেমার নাচ গান অভিনয় গল্পে সবকিছুই প্রশংসার দাবি রাখে। আইটেম গানে দক্ষিণী অভিনেত্রী সামান্থাকে বেশ মানিয়েছে, অন্যান্য দক্ষিণী ছবি এর প্লটের মত এই ছবির প্লটও একেবারে অভিনব।  

কেজিএফ যেমন স্বর্ণখনি অঞ্চলের কাহিনী প্রধান পেয়েছিল, পুষ্পা তেমনি প্রধান পেয়েছে লাল চন্দন কাঠ পাচারের কাহিনী। পরিচালক আল্লু অর্জুনের লুক ও মেকআপের দিকে বিশেষ দৃষ্টি যেমন দিয়েছেন তেমনি ভিলেন চরিত্র গুলির মেকআপ তারিফ করার মতো। 

অভিনয় করেছেন আইপিএস ভবর সিং চরিত্রে এবং মঙ্গলশ্রীনুর চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুনিল ভার্মা এই দুটি চরিত্রের মেকআপ একেবারে ভিন্ন রূপে। তাদেরকে দর্শকের সামনে এমনভাবে বেশ করেছে, এছাড়া ধনঞ্জয় রয়েছে, রেডি অজয় ঘোষ হয়েছেন। কোনডা রেড্ডি সাতরু হয়েছেন ডিএসপি গোবিন্দা বাপ্পা এবং কল্পলতা হয়েছেন পুষ্পা রাজের মা। 


পুষ্পা মুভির চিত্রনাট্য ও ডায়লগ

পুষ্পা মুভির একটি ডায়ালগ পুষ্পাকো ফ্লাওয়ার সমঝ লিয়া কে পুষ্পা ফ্লাওয়ার নেহি ফায়ার হে, এটি এখন সবার মুখে মুখে। সুকুমারের পুষ্পা রাজ চরিত্রে ধরা পড়েছে চন্দন দস্যু বিরাপ্পান ছায়া চিত্রনাট্যকার এই সিনেমার ক্লিপ নিয়ে রীতিমত গবেষণা চালিয়েছেন।

পুস্পা মুভি রিভিউ // Puspa Movie Review


আমাদের দেশে দু'ধরনের চন্দন কাঠ পাওয়া যায়, সাদা এবং লাল সাদা চন্দন সুন্দর গন্ধ থাকলেও লাল বা রক্তচন্দনের কোন গন্ধ নেই। কিন্তু এই কাঠের বিশেষ গুণ এর জন্যই এই চন্দনের চাহিদা বিশ্বজুড়ে আর এই বিপুল চাহিদার কারণে এই কাঠ পাচার হয়। 

সারা বিশ্বে রক্তচন্দন কে তাই কেউ কেউ লাল চন্দন বলে এই গাছ অত্যন্ত বিরল এবং সোনার মতোই মূল্যবান। পুষ্পা মুভিতে যে সেসা জঙ্গলের কথা বলা হয়েছে রক্তচন্দন ওই সেসা পাহাড়ের ঘন জঙ্গলে পাওয়া যায়, তামিলনাড়ু লাগোয়া অক্টোবের ৪ জেলা পাওয়া যায়। 

নেল্লোর কুর্নুল চিতোর এবং কাটাপ্পা জেলাতে এই গাছ মেলে পূর্বঘাট পর্বতের আবহাওয়ায় এই গাছ খুব ভালো হয়। চিত্রনাট্যকার এবং পরিচালক সুকুমার দক্ষিণে বিভিন্ন জঙ্গলে ঘুরে লোকেশন নির্বাচন করেছেন। সুকুমারের বাস্তব প্রেক্ষাপটের গল্প এবং তার সঙ্গে একাধিক মানানসই ডায়ালগ সিনেমাকে সাফল্যের চূড়ায় নিয়ে গেছে। 


পুষ্পা মুভির সিনেমাটোগ্রাফি

অঙ্গ প্রদেশের একাধিক পাহাড়ি অঞ্চলে ছবির শুটিং হয়েছে শেষাচলম পাহাড়ের ঘন জঙ্গলে একাধিক দৃশ্য শ্যুট করা হয়েছে। সিনেমার গানের দৃশ্য লোকেশন মনকাড়া পুরনো সময়ের সিকুয়েন্স ক্রিকেট করার জন্য আর এর দশকের ব্যবহার দেখানো হয়েছে। 

পুলিশের হাত থেকে ট্রাক চালিয়ে তা একটি কোর মধ্যে ফেলে দেয় সেই দৃশ্যটি কার্য যত বেশি রোমাঞ্চকর দৃশ্য করে। এছাড়া সিনেমার শেষের দিকে মঙ্গল চিনো গুন্ডা বাহিনীর সাথে লড়াই করেছে চোখ ও হাত বাঁধা অবস্থায় সে একশন দৃশ্যটি তারিফ করার মতন। এছাড়া নদীতে মোটর বাইক নিয়ে দৃশ্যটিও বেশ আধুনিক পদ্ধতিতে শুট করা হয়েছে। 


পুষ্পা মুভি পরিচালনা

পুষ্পা দাঁড়ায় সিনেমার শুরুতে পুষ্পা চরিত্রে অভিনয় করার কথা ছিল মহেশ বাবুর পরিচালক মহেশ বাবুর কিছু মতবিরোধের কারণে পুরো সিনেমা থেকে সরে যান। পরে সুকুমার পরিবর্তন এস কে পরিবর্তন করেন ও আলু অর্জুনের সাথে প্রকল্প টি এগিয়ে যাওয়ার কথা ঘোষণা করেন ২০২০ সালের ৪ এপ্রিল। 

সিনেমার নাম ঘোষিত হয় এবং পুষ্পরাজ হিসেবে আলু অর্জুনের চেহারা ফাস্ট লুক পোস্টারে প্রকাশিত হয়। সিনেমাটি ১৩ অক্টোবর ২০২১ এ রিলিজ করার কথা থাকলেও কোভিদ পরিস্থিতির কারণে পিছিয়ে যায় এবং ১৭-১২-২০২১ রিলিজ করে। 

বাহুবলি কেজিএফ এর পরে বক্স অফিসে হিট ছবি দক্ষিণ ভারতের হিন্দি ডাবিং ফেলে দিয়েছে 17 ডিসেম্বর মুক্তি পায় ছবিটি। প্রথম দিনেই ১০০ কোটির ব্যবসা করে আর এখনো অব্দি পুষ্পা ৩০০ কোটির অধিক ব্যবসা করে এগিয়ে চলেছে দ্রুতগতিতে। 

ছবির ইতিহাসে এখন অব্দি এত অল্প সময়ে সবচেয়ে বেশি ব্যবসা করা ছবিটি এই সিনেমার সাফল্যের পরও আলু অর্জুন ও পূজা অভিনীত হিন্দি সংরক্ষণ রিলিজ হতে চলেছে। ২৬ জানুয়ারি বড়পর্দা ছাড়াও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মেও দর্শকরা দেখতে পাচ্ছেন। 

ওটি প্লাটফর্মে দর্শক তেলুগু তামিল ও হিন্দি ভার্সন এ পুরো দেখতে পাচ্ছেন সিনেমার হিন্দি ভার্সন, এর আলু অর্জনের জন্য কণ্ঠ দিয়েছেন শরীয়ত তালপাড়ে। পুষ্পা সিনেমার ফাহাধ ফাসিল ওরফে আইপিএস বক্সিং চরিত্রে অভিনয় করার কথা ছিল যিশু সেনগুপ্তর। 

প্রিয় পাঠক ভাই ও বোনেরা পুষ্পা দারাইস মুভিটির রিভিউ সম্পর্কে এতোটুকুই ছিলো, আপনারা যারা পুষ্প মুভি দেখেছেন তারা অবশ্যই পুষ্পা মুভি ভালোই উপভোগ করেছেন। আর যারা এখনো দেখেননি আশা করব পুষ্পা মুভিটি দেখে নিবেন, কেননা পুষ্প মুভিটি সেই রকমের একটি ভালো পুষ্পা মুভি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা এতোটুকুই ছিলো, সবাই ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন। 


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নবীনতর পূর্বতন

যোগাযোগ ফর্ম